ধামরাইয়ে জোরপূর্বক চাকরিচ্যুত করায় শ্রমিকদের মানববন্ধন

প্রকাশিত: ১১:১৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২১

ধামরাই(ঢাকা) প্রতিনিধি: ৯ জানুয়ারী ২০২১

ঢাকার ধামরাইয়ে অবস্থিত আন্তর্জাতিক কোম্পানী বাটা সু কারখানা থেকে প্রায় সোয়া দুইশত শ্রমিককে অন্যায়ভাবে জোড়পূর্বক চাকরিচ্যুত করার ঘটনায় ক্ষতিপূরণ ও চাকরিতে পূণর্বহালের দাবিতে গতকাল শনিবার এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

৯ জানুয়ারি ( শনিবার) ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ধামরাই প্রেসক্লাবের সামনে এ মানবন্ধন কর্মসূচী পালন করেন জোড়পূর্বক চাকরিচ্যুত করা শ্রমিকরা।

এর আগে চাকরিচ্যুতরা বাটা সু কোম্পানীর বিভিন্ন পদের কর্মকর্তাদের নামে শ্রম অধিকার আইনে (শ্রম আদালতে) মামলা দায়ের করার কথাও সাংবাদিকদের অবহিত করেন।

তাদের অভিযোগ, চাকরির মেয়াদ থাকা সত্ত্বেও অনেককে ক্ষতিপূরণ ও এরিয়ার বিল না দিয়ে জোরপূর্বক কিছু কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বাটা সু কারখানার শ্রমিক- জাকির হোসেন,পলাশ, মোজাম্মেল, মুনছের আহমেদ,সিদ্দিকুর রহমান বলেন, গাজিপুরের টঙ্গী ও ধামরাইয়ের বাটা সু কারখানা লে-অফ ঘোষনা করে দুইশ ২০জন শ্রমিককে অন্যায়ভাবে চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়েছে।

ধামরাই ও টুঙ্গীর স্থানীয় ও আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের নাম ব্যবহার করে শ্রমিক ইউনিয়নের সহায়তায় কর্তৃপক্ষ কিছু কাগজে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়েছেন। যা স্বেচ্ছায় চাকরি থেকে অব্যাহতি নেওয়া হয়েছে মর্মে কর্তৃপক্ষ জমা রেখেছে।

তারা আরো জানায়, স্বাক্ষর নেয়া ওইসব কাগজে কি লেখা রয়েছে তা পড়তে, দেখতে ও জানতে দেয়নি কর্তৃপক্ষ।
যাদের চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে অথচ তাদের অনেকের চাকরির মেয়াদ রয়েছে প্রায় ১০-১৫ বছর।

যেদিন অব্যাহতি দেয়া হয়েছে সেদিন কারখানার সামনে বিপুল পরিমান পুলিশ মোতায়েন রেখে কারখানা থেকে তাদের জোরপূর্বক বের করে দেওয়ারও অভিযোগ করেন তারা।

পরিশেষে তারা আরো জানায়, লে-অফের অজুহাত দেখিয়ে ২২০জন শ্রমিককে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়ার পর এখন ৭-১০ লাখ টাকা ঘুষ নিয়ে নিয়োগ বাণিজ্য শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ।