সাটুরিয়া থানার আলোকিত পুলিশ কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান

প্রকাশিত: ৯:২৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২, ২০২১

মোঃ মাসুদ রানা:  ২ফেব্রুয়ারি ২০২১

সাটুরিয়া থানার জ্ঞাণী-গুণী ও অদম‍‍্য মেধাবী আলোকিত ও চৌকস পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনিই নিজের জীবনের মায়া-মমতা ত‍্যাগ করে জীবন বাজি রেখে মাত্র ৭দিনে মধ‍্যে বিভিন্ন জেলার ঢাকায় বিভিন্ন জায়গায় পালিয়ে থাকা আন্তঃজেলার কুকক্ষেত ৬ জন ডাকাতকে লুন্ঠিত প্রায় ৮১ লক্ষ টাকার মালামালসহ হাইজাক করে নেওয়া ক‍্যাভার্ডভ‍্যান গাড়িটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন।

এ সময়ে তাদের সঙ্গে ছিল একটি ওয়াকিটকি, রশি, গামছা ও হ‍্যান্ডকাফ। অতি অল্প সময়ের মধ‍্যে তিনি অপরাধিদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে তাদেরকে জেল হাজতে প‍্রেরণ করেছেন।

উল্লেখ‍্য গত ১৮ জানুয়ারি ঢাকা-আরিচা মহা সড়কে দোতরা নামক স্হানে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে ডাকাতরা গাড়িসহ প্রায় ৮১ লক্ষ টাকার মালামাল লুটে নিয়ে যায়। পরে মামলা হলে তিনি সব উদ্ধার করে ডাকাতদেরকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন। তাই সত‍্যিই তিনি অর্পিত দায়িত্ব পালন করে খুবই প্রশংসনীয় সঠিক কাজটি করেছেন। কিন্ত এ প্রশংসীত ও মহতি কাজের ভাগিদার হচ্ছেন মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহা (সদর সার্কেল) ও সাটুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আশরাফুল আলম। ডাকাত ধরার ব‍্যাপারে আইওর সমন্ধে এলাকাবাসী এ প্রতিবেদককে বলেন যে, এ পুলিশ কর্মকর্তা একজন সুযোগ‍্য, দক্ষদার, দায়িত্বশীল, তীক্ষণ বুদ্ধিমান, জ্ঞাণী-গুণী, আদর্শবান, একনিষ্ঠু, অর্পিত দায়িত্ব পালনে নিষ্ঠাবান, জ্ঞানের প্রদীপ, কর্তব‍্য কাজের প্রতি সজাগপূর্ণ, খাটি ও আলোকিত সাদা মনের মানুষ, তাতে কোন সন্দেহ নেই। এলাকায় অনেক কাজে তার অগাত বুদ্ধিমত্তার পরিচয় পাওয়া গেছে। তিনি এবং ওসি এ থানায় যোগদানের পর থেকে আইন শৃঙ্খলার ব‍্যাপক উন্নতি হয়েছে বলে তারা জানান। আমরা তাদের পরিবার-পরিজনসহ কর্মময় জীবনের উতরোত্তর উন্নতি ও মঙ্গল কামনা করি। ভাল ও আলোকিত সাদা মনের মানুষ হচ্ছেন সদ‍্য যোগদানকারী তরুণ অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আশরাফুল আলম। প্রবাদে আছে, গাছ ভাল যার-ফল ভাল তার। ” সেবাই পরম ধর্ম, সব ধর্মেরই মর্ম কথা,, মনিষীদের এ প্রবাদ বাক‍্যটির সারমর্ম স্বরণ করে রাত-দিন ২৪ ঘন্টা ওসি মানব কল‍্যাণে সেবক হয়ে জনগণের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।