সাটুরিয়ায় তামাক চাষ নিরুৎসাহিত করণ জনসচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ১০:৩৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১

সাটুরিয়া প্রতিনিধি: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার তিল্লী ইউনিয়নে তামাক চাষ নিরুৎসাহিত করণ এর ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে
সাটুরিয়া উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে গতকাল বৃহস্পতিবার গুরুত্বপূর্ণ জনসচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে সাটুরিয়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তের কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ খলিলুর রহমনের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন কৃষি খামার বাড়ি মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মোঃ আমিরুল ইসলাম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন তিল্লী ইউপি চেয়ারম‍্যান মোঃ মুরছালিন বাবু। অনুষ্ঠানে তামাক চাষী, এলাকার গন‍্যমাণ‍্য ব‍্যক্তিবর্গ ও নানা শ্রেণী পেশার লোকজন মিলে সুধিজন উপস্হিত ছিলেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা খলিলুর রহমান তার জোড়ালো বক্তব‍্যে বিস্তারিত আলোচনা করেন ও বলেন যে, ” ধূম প্রাণে, বিষ প্রাণ,। তাই আমরা তামাক চাষও করব না আর বিড়ি-সিগারেটও ধরব না। সুতরাং তামাক চাষ না করা অনেক ভাল। তামাক চাষ না করার জন‍্যে সকলকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করেন তিনি। আর তামাক চাষে কৃষকগণ পদে পদে ব‍্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। যথাঃ রোপন থেকে শুরু করে তামাক পাতা ভাঙ্গা ও শুকানোর সময়ে তামাকের নিকোটিন যুক্ত গ্যাসে পুরুষ, নারী, শিশু ও প্রসুতি মাসহ বাড়ির আশেপাশের সকল মানুষদের শ্বাস কষ্ট হয় কিংবা অনেকের প্রাণঘাতী ব‍্যধি ক্যান্সারও হচ্ছে। চাষীরা রাতে ঘুমোতেও পারে না। তামাক রোপিত জমিতে কাজ করার ফলে অসুবিধায় পরে শ্রমিকগণ অন‍্য কাজ করতে অসস্থি বোধ করেন। এছাড়া এক বিঘা জমিতে তামাক বপনে যেপরিমান লাভ হয় সে হিসেবে এক বিঘা ভূট্টা জমি থেকে সমপিরমান লাভ পাওয়া যায়, অথচ পরিশ্রম অনেক কম হয়। নানা দিক বিবেচনায় তাই তিনি সকলকে তামাক ছেড়ে ভূট্টা অথবা সবজি চাষ করতে জোড়ালো আহবাণ করেন। বিশেষ অতিথি বলেন যে, তামাক চাষের ফলে তার এলাকায় ক্যান্সারের রোগীর সংখা অনেক বেশী, তাই সকলকে তিনি তামাক চাষ করতে নিষেধ করেন। প্রধান অতিথি মোঃ আমিরুল ইসলাম তার বক্তৃতায় তামাক চাষ নিরুৎসাহিত করণসহ অন্যান্য রাসায়নিকের মানবদেহে ক্ষতিকর পভাব সম্পর্কে বিস্তারিত আলাপ-আলোচনা করন। তিনি আরো বলেন যে, প্রতিবছর তামাক চাষের ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে কষকদের সাথে ব‍্যাপক আলোচনা করার ফলে সাটুরিয়াতে ক্ষতিকর তামাক চাষ ১৮ শ. হেক্টর থেকে ২ শ. হেক্টরে নেমে এসেছে বলে তিনি জানান। বর্তমানে সাটুরিয়ার তিল্লী ইউপিতে ব‍্যাপক, ধানকোড়া ইউপির কামতায় কিছু ও ফুকুরহাটি ইউপির রাইল‍্যা কিছু কিছু জমিতে তামাক চাষ হচ্ছে।