নওগাঁ কীটনাশক দিয়ে রুপন কৃত ধানের চারা পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

প্রকাশিত: ৭:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১

নওগাঁ প্রতিনিধি: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার উমার ইউনিয়নের চৌঘাট কাগজকুটা এলাকায় প্রায় দেড় একর জমির বোরো ধানের চারা বিষাক্ত কীটনাশক দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বত্তরা। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী কৃষক আহাদুল ইসলাম ২২ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে

জানা গেছে, উপজেলার চৌঘাট এলাকার মহাসীন মন্ডলের ছেলে আহাদুল ইসলাম ও পার্শ্ববতী আলমপুর ইউনিয়নের বীরগ্রাম এলাকার মৃত নায়েব আলীর ছেলে এনামুল ইসলামের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরুদ্ধ কে কেন্দ্র করে গত ২১ ফেব্রুয়ারি কয়েকজন মিলে দেড় একর জমিতে বিষাক্ত কীটনাশক প্রয়োগ করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে ধানের চারাগুলো হলুদ হয়ে বিবর্ণ রং ধারণ করেছে। এতে ওই কৃষকের প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী কৃষক আহাদুল ইসলাম বলেন, ওই জমি প্রায় ৫০ বছর ধরে ভোগদখল করে আসছি। প্রতিপক্ষ আমাদের জমি বর্গাচাষ করত। এক পর্যায়ে তারা জাল দলিল তৈরি করে নিজের জমি বলে দাবি করে। এ নিয়ে গত কয়েক বছর থেকে বিরোধ চলে আসছে। প্রতিপক্ষ আমার ক্ষতি করতে জমিতে কীটনাশক ছিটিয়ে ধানের চারা পুড়িয়ে দিয়েছে। এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত  এনামুল ইসলাম বলেন, ১৯৭২ সালে আমরা ওই জমি কিনেছি। গত সাত বছর জমিতে চাষাবাদ করেছি। কিন্তু মালিকানা নিয়ে বিরোধ থাকায় এ বছর চাষাবাদ করতে গেলে তারা বিভিন্নভাবে বাধা দেয়। এতে আমরা জমি থেকে সরে আসি। তবে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জমি ফিরিয়ে আনার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। জমিতে কীটনাশক দেয়ার অভিযোগটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।